অবিশ্বাস্য ব্যাটসম্যান

খেলা মানুষের চিত্ত বিনোদনের প্রধান মাধ্যম। ফুটবলের পর বর্তমান বিশ্বে  ক্রিকেট সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা। এই খেলায় ১১ জন করে খেলোড়ার অংশগ্রহণ করে থাকেন। এই খেলোড়ারদের অসাধারণ প্যারফরম্যান্স ক্রিকেটপ্রেমীদের আনন্দ দিয়ে থাকে, এবং এসব খেলোড়াররা জায়গা করে নেয় মানুষের মনের মনিকোঠায়। খেলোড়ারদের অসাধারণ প্যারফরম্যান্স মানুষ মনে রাখে যুগ যুগ ধরে। তেমনি কিছু ব্যাটসম্যানের অসাধারণ কীর্তির কথা  আপনাদের সামনে তুলে ধরব। চলুন, দেখে নিই এক নজরেঃ

 

জ্যাক হবস

ইংল্যান্ডের ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান সবচেয়ে বেশি বয়সে সেঞ্চুরি করেন – ৪৬ বছর।

প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ১৯৭ সেঞ্চুরিসহ ৬১,২৩৭ রান তাঁর সংগ্রহে।

পেশাদার ক্রিকেটারদের মধ্যে তিনিই প্রথম নাইটহুড পান, ১৯৫৩ সালে।

 

সাঈদ আনোয়ার :

পাকিস্তানের এই ব্যাটসম্যান ২০০৩ সালে ৩৫ বছর বয়সে অবসর নেবার আগে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ২৪৭ ম্যাচে ৩৯.২১ গড়ে ৮,৮২৪ রান করেন।

সাঈদ আনোয়ার
সাঈদ আনোয়ার

 

১৯৯৭ সালে চেন্নাই স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে খেলা ১৯৪ রানের ইনিংসটি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংসের রেকর্ড হিসেবে টিকে ছিলো ২০০৯ সাল পর্যন্ত – প্রায় ১২ বছর।

 

গ্যারি কারস্টেন :

দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যান ১৯৯৬ বিশ্বকাপে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে অপরাজিত ১৮৮ রানের ইনিংস খেলে বিশ্বকাপে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংসের রেকর্ড গড়েন তিনি।

রেকর্ডটি টিকে ছিলো ২০১৫ বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত।

 

 

স্যার ডন ব্র্যাডম্যান:

এ ক্রিকেট কিংবদন্তিকে চেনার জন্য একটি তথ্যই যথেষ্ট। টেস্ট ক্যারিয়ারের শেষ ইনিংসে ০ রানে আউট হবার কারণে তাঁর ব্যাটিং গড় ১০০ থেকে হয়ে যায় ৯৯.৯৪।

 

ডন ব্র্যাডম্যান
ডন ব্র্যাডম্যান

 

 

 

 

অ্যালান বোর্ডার

অস্ট্রেলিয়ার এই ব্যাটসম্যান,  ১৫৬ ম্যাচে ১১,১৭৪ রানের টেস্ট ক্যারিয়ার এ ক্রিকেটারের,  যা ২০০৫ সাল পর্যন্ত বিশ্বরেকর্ড ছিলো। ইতিহাসের একমাত্র খেলোয়াড় হিসাবে এক টেস্টের দুই ইনিংসেই কমপক্ষে ১৫০ রান করার কীর্তি গড়েছিলেন ১৯৮০ সালে।

 

মার্টিন ক্রো :

১৯৯২ বিশ্বকাপে নিউ জিল্যান্ড দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তিনি।

 

মার্টিন ক্রো
মার্টিন ক্রো

 

কিউই বোলিংয়ের সাথে যেমন স্যার রিচার্ড হ্যাডলির নাম উচ্চারিত হয়, তেমনি ব্যাটিংয়ের ক্ষেত্রে আসে তাঁর নাম। ৭৭ টেস্ট ম্যাচে ১৭ সেঞ্চুরি করেন  এই  ব্যাটসম্যান।

 

শচীন টেন্ডুলকার

একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করা এ ব্যাটসম্যানের ওয়ানডে অভিষেক হয় ১৯৮৯ সালের ১৮ ডিসেম্বর, পাকিস্তানের বিপক্ষে।

শচীন টেন্ডুলকার
শচীন টেন্ডুলকার

 

ইতিহাসের অন্যতম সেরা এ ব্যাটসম্যান হলেন ।

 

গ্যারি সোবার্স

৯৩ টেস্টে ৫৭.৭৮ গড় ও ২৬ সেঞ্চুরি করা এ ক্রিকেট কিংবদন্তির ক্যারিয়ারে রয়েছে শুধু একটি ওয়ানডে ম্যাচ।

১৯৫৮ সালে মাত্র ২১ বছর বয়সে অপরাজিত ৩৬৫ রান করে তৎকালীন সর্বোচ্চ টেস্ট রানের রেকর্ড (৩৬৪ – ইংল্যান্ডের লেন হাটন) ভেঙে দেন তিনি।

 

 

ব্রায়ান লারা :

“The Prince of Port of Spain” নামে খ্যাত ত্রিনিদাদে জন্ম নেয়া বিখ্যাত এ ব্যাটসম্যানের দখলে আছে টেস্ট ক্রিকেটে একমাত্র ৪০০ রানের ইনিংস।

ব্র্যায়ন লারা
ব্র্যায়ন লারা

 

২০০৪ সালে অ্যান্টিগায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অপরাজিত ৪০০ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

 

কুমার সাঙ্গাকারা :

২০১৫ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে টানা চার ম্যাচে সেঞ্চুরি করে রেকর্ড করেন।

টানা চার টেস্টে ১৫০+ রান করা প্রথম ব্যাটসম্যানও তিনি।

৪০৪ ওয়ানডে ম্যাচে ১৪,২৩৪ রান আর ১৩৪ টেস্টে ১২,৪০০ রান তাঁর উজ্জ্বল ক্যারিয়ারকেই তুলে ধরে।

কুমার সাঙ্গাকারা
কুমার সাঙ্গাকারা

 

ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *