পলক মুচ্ছল – মানবতার জন্য নিবেদিত এক প্রাণ

মিউজিক জগতের জনপ্রিয় একটি নাম পলক মুচ্ছল। আশিকি টু মুভির গান ‘টুই Tu hi ye mujhko bata de Chahun main ya naa’ গানটি কে না শুনে নাই। এ ছাড়া প্রচুর জনপ্রিয় মুভির গানের গলায় ছিলেন কিউট সিঙ্গার পলক মুচ্ছল। শুধু শিল্পী হিসেবেই নয় মানবতার মশাল বাহক হিসেবে পলক স্থাপন করেছেন উজ্জল দৃষ্ঠান্ত।

 

Palak Mucchal
Palak Mucchal

 

চলুন জেনে নেই তার সম্পর্কে কিছু তথ্যঃ

 

১। পলক কাজ করেন মানবতার জন্য। ২০১৬ এর ডিসেম্বার পর্যন্ত পলক মুচ্ছল গান গেয়ে অর্থ সংগ্রহ করে বাঁচিয়েছেন ১৩৩৩ শিশুকে। হার্টের রোগে ভুগতে থাকা এসব শিশু অর্থের অভাবে পাচ্ছিলোনা চিকিতসা। তাদের পাশে দাঁড়ান পলক মুচ্ছল।

 

২। শিশুদের জন্য কাজ করে ইতিমধ্যে অগনিত মানুষের ভালোবাসা পেয়েছেন পলক মুচ্ছল, পেয়েছেন কিছু স্বকৃতিও। গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস এবং লিমকা বিশ্ব রেকর্ড এ নাম উঠেছে তার এসব অবদানের জন্য। পেয়েছেন দেশে বিদেশ অনেক পুরষ্কার।

 

৩। পলক মুচ্ছল এর বয়স যখন ১১ বছর, ততদিনে পলক ১০০ এরও বেশি শিশুর জীবন বাঁচিয়েছিলেন নিজের সংগ্রহিত অর্থ দিয়ে।

 

৪। চার বছর বয়স থেকে পলক মুচ্ছল গান গাওয়া শুরু করেছিলেন।

 

৫। মার্চ ২০০০ সালে পলক অনেক গুলো অনুষ্ঠানে গান গেয়ে একান্ন হাজার রুপি কালেক্ট করেছিলেন একজন স্কুল শিক্ষককে বাঁচানোর জন্য।

 

Palak Mucchal
Palak Mucchal

 

৬। স্কুল শিক্ষককে চিকিতসা সহায়তা দেওয়ার পর ৩৩ টি শিশুর পরিবার পলকের সাথে যোগযোগ করে যারা টাকার অভাবে চিকিতসা করাতে পারছিলোনা। এরপর পলক মুচ্ছল শুরু করেন আরো গান পরিবেশনা বিভিন্ন জায়গায়। ২ লাখ ২৫ হাজার রুপির বেশি সংগ্রহ করেন তিনি এসব শিশুদের জন্য।

 

৭। নিজের সংগ্রহিত টাকা দিয়ে পলক গড়ে তোলেন ‘পলক মুচ্ছল হার্ট ফাউন্ডেশন’।

 

৮। সতেরোটি ভাষায় সংগীত পরিবেশনের দক্ষতা রয়েছে মিষ্টি এই মেয়ে পলক মুচ্ছল এর।

 

৯। বর্তমানে ১টি স্টেজ প্রোগ্রাম করে পলক ৭ থেকে ৮ টি শিশুর চিকিতসার জন্য অর্থ সংগ্রহ করে থাকেন।

 

১০। ১৯৯২ সালের ৩০ মার্চ জন্ম গ্রহন করেছিলেন মানবতার জন্য কাজ করা এই মেয়েটি।

 

ভালো লাগলে শেয়ার করুন, জানুক সবাই মানবতার এই গল্প।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *