বিশ্ব ক্রিকেট এর অজানা কিছু মজার ঘটনা

ফুটবলের পর ক্রিকেট সবচেয়ে জনপ্রিয় বর্তমান সময়ে।  বাংলাদেশে ক্রিকেট মানে শুধু খেলা নয়, তার চেয়ে বেশি কিছু।  আর তাইতো ক্রিকেট নিয়ে আমাদের কৌতুহল একটু বেশিই। চলুন, প্রিয় পাঠক কৌতুহলোদ্দীপক এমন কিছু মজার তথ্য দেখে নেয়া যাক।

 

১। ক্রিস গেইলকে আমরা সবাই মারকুটে ব্যাটসম্যান হিসাবে জানি।  টি-টোয়েন্টিতে তিনি অসাধারণ পারফরমার।  কিন্তু টেস্টেও তিনি  এক অনন্য রেকর্ডের অধিকারী। তিনিই একমাত্র খেলোয়াড়, যিনি কোন এক টেস্ট ম্যাচের প্রথম বলেই ছক্কা হাঁকিয়েছেন। তাঁর এই রেকর্ডটি এখন পর্যন্ত কেউ ভাংগতে পারেনি।

 

২। অ্যালেক স্টুয়ার্ট ইংল্যান্ডের একজন উইকেটরক্ষক ও ব্যাটসম্যান ছিলেন। তাঁর জন্ম তারিখের সাথে তাঁর টেস্ট ক্যারিয়ারের রানের একটা মিল আছে। তাঁর জন্ম তারিখ ৮.৪.৬৩। তাঁর মোট টেস্ট রানও ৮৪৬৩!

৩। অ্যালান বোর্ডার তাঁর ক্যারিয়ারের ১৫৬ টি টেস্টের মধ্যে ১৫৩ টি টেস্টই খেলেছিলেন একটানা। মাঝে কোন বিরতি না দিয়ে এত গুলো টেস্ট খেলার রেকর্ড একমাত্র তারই।

 

৪। টিভি আম্পায়ার প্রথম আউট দিয়েছিলেন কিংবদন্তী ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকারকে! আর সেই রানআউট  করেছিলো  বিশ্ব বিখ্যাত ফিল্ডার জন্টি রোডস। একই টেস্ট ম্যাচে পরবর্তী দিনে জন্টি রোডসকে আম্পায়ার রান আউট দেয় আর সেই রান আউট করেছিলেন শচীন টেন্ডুলকার।

 

৫। ১১/১১/১১ তারিখের কোন এক ম্যাচে, সকাল ১১.১১ মিনিটে ম্যাচ জয়ের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার প্রয়োজন ছিল ঠিক ১১১ রান!

 

৬। একটানা ৪ টি ওয়ানডেতে একজন ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হয়েছিলেন  আর তিনি হলেন “বাংলার রসগোল্লা” সৌরভ গাঙ্গুলী।

 

৭। ইনজামাম উল হক ক্রিকেটের এক অলস সৌন্দর্যের ছবি। এই ব্যাটসম্যানের বোলার হিসেবে একটা মজার রেকর্ড আছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিনি তাঁর প্রথম বলেই উইকেট পেয়েছিলেন!

 

৮।  ক্রিকেট ইতিহাসে এমন ৪ জন খেলোয়াড় আছেন, যারা বিভিন্ন সময় দলের প্রয়োজনে ১০ টি ভিন্ন পজিশনে ব্যাট করেছেন। তাঁরা হলেন- ল্যান্স ক্লুজনার, আব্দুর রাজ্জাক, শোয়েব মালিক এবং হাশান তিলকারত্নে।

 

৯। গ্রায়েম স্মিথ একমাত্র অধিনায়ক, যিনি ১০০ এর বেশি টেস্টে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। আর কোন অধিনায়কেরই এই অসাধারণ রেকর্ড নেই।

 

১০। শহীদ আফ্রিদি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার দ্রুততম শতকটি করেছিলেন ওয়াকার ইউনিস কাছ থেকে ধার করা ব্যাট ব্যবহার করে।

 

১১। অস্ট্রেলিয়ার এলান ডেভিডসন প্রথম খেলোয়ার যে এক টেষ্ট ম্যাচে ব্যাটিং করে ১০০ রান এবং বোলিং করে ১০ উইকেট পেয়েছিল।

 

ভালো লাগলে শেয়ার করবেন অবশ্যই।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *