মাসে একবার বউ পেটানো যাবে!

দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য পৃথিবীর সব দেশেই আইন -কানুন বানানো হয়। সব দেশের বেশিরভাগ আইনের মিল দেখা যায়, কিন্তু কিছু দেশে কিছু অদ্ভত নিয়ম কানুন আছে। যা মানুষের মধ্যে চমক সৃষ্টি করে। সেই রকমের কিছু আইন পাঠকদের জন্য তুলে ধরছি।

law
law

জাপান: কোন মেয়েকে প্রণয়ের প্রস্তাব দিলে আইন অনুসারে মেয়েটি না করতে পারবে না।

 

হংকং : স্ত্রী পরকীয়া করলে স্বামী তাকে খুন করতে পারে। তবে শর্ত একটাই আর তা হলো খুন করতে হবে খালি হাতে।

 

কলোরাডো : যৌক্তিক কোন কারণ না দেখিয়ে বৃষ্টির পানি সংগ্রহ করা এক ধরনের চুরি। এটি প্রতারণা অথবা ছিনতাইয়ের পর্যায়ে পড়ে বলে এই দেশের আইনে রয়েছে।

 

ইলিনয়িস : শীতকালে কোন বাচ্চা জমে থাকা তুষার দিয়ে স্নো বল বানিয়ে গাছের দিকে ছুঁড়তে পারবে না।

 

কলাম্বিয়া : মেয়ের বাসর রাতে তার মার উপস্থিতি বাধ্যতামূলক।

 

গুয়াম (আমেরিকা) : কোন কুমারী মেয়ে বিয়ে করতে পারে না। অঙ্গরাজ্যটিতে কিছু পেশাদার পুরুষ  আছে যারা অর্থের বিনিময়ে কুমারীত্বের অভিশাপ মোচন করে। পরে তাদের দেয়া সনদ মোতাবেকই বিবাহ সম্পন্ন হয়।

 

ইংল্যান্ড : পার্লামেন্টে মৃত্যুবরণ করা বেআইনি।

 

অস্ট্রেলিয়াঃ অস্ট্রেলিয়াতে বাচ্চারা সিগারেট কিনতে পারবে না। কারণ এটা আইনবিরোধী। কিন্তু সিগারেট খেতে/টানতে পারবে! এতে কোনো বাধা নেই!

 

ফ্রান্স : শুকরের নাম নেপোলিয়ন রাখা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

 

ইন্ডিয়ানা: রবিবার গাড়ি বিক্রি করা আইনত দণ্ডনীয়।

 

আরকানসাস : মাসে একবার বউ পেটানো যাবে। এটাই আইন। দুইবার পেটালেই সাজা।

 

নেভাদা : বউ পেটানো ধরা পড়লে আইন অনুসারে তাকে আট ঘণ্টা বেঁধে রাখা হবে। তার বুকের মধ্যে একটা পোস্টার সেঁটে দেয়া হবে, ওয়াইফ বিটার বা বাংলায় ‘বিশিষ্ট বউ পেটানো বিশেষজ্ঞ’ বলা যায়।

 

থাইল্যান্ড : ত্রিশ বছরের বেশি বয়সী অবিবাহিত মহিলারা দেশের সম্পত্তি হিসেবে গণ্য হবে।

 

সামাও : নিজের বউয়ের জন্মদিন ভুলে যাওয়া বেআইনি।

 

অ্যারিজোনা : সাবান চুরিতে ধরা পড়লে তার শাস্তি হল- ওই সাবান দিয়েই নিজেকে ধুতে থাকবে যতক্ষণ না সাবান পুরো শেষ হয়।

 

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *